1. ronju@chapaidarpon.com : Md Ronju : Md Ronju
  2. sobuj033@gmail.com : sobuj :
প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রুত প্রকল্প- চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ রেলপথ সম্প্রসারণ প্রকল্প ॥ বাস্তবায়ন হচ্ছেনা দীর্ঘদিনেও - দৈনিক চাঁপাই দর্পণ
শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২, ০২:৫৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের মন্ডপ পরিদর্শণ- চাঁপাইনবাবগঞ্জে মন্ডপে দশমী পূজার মাধ্যমে দেবী বিসর্জন চাঁপাইনবাবগঞ্জে ডাকাতের ছুরিকাঘাতে কৃষকের মৃত্যু শিবগঞ্জে ডাঃ শিমুল এমপি’র পূজামন্ডপ পরিদর্শন-আর্থিক সহায়তা প্রদান শিবগঞ্জের প্রতিটি মন্দির কে আধুনিক করা হবে-সৈয়দ নজরুল এখনও অজানা কানসাটের গৃহবধূ আঁখি’র নিখোঁজের রহস্য শিবগঞ্জে ব্লাড গ্রুপিংসহ ৪’শ রোগীর বিনামুল্যে সেবা প্রদান নাটোরের সেলিনা খাতুন শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষিক চৌকা সীমান্তে ৫৯ বিজিবি’র ফেন্সিডিল উদ্ধার নাটোরে পুরোহিত এবং আনসার সদস্যর মৃত্যু তোহিদুল আলম (টিয়া) শ্রেষ্ঠ বিদ্যোৎসাহী সমাজকর্মী নির্বাচিত ॥ বিভিন্ন মহলের সংবর্ধনা

প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রুত প্রকল্প- চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ রেলপথ সম্প্রসারণ প্রকল্প ॥ বাস্তবায়ন হচ্ছেনা দীর্ঘদিনেও

বিশেষ প্রতিনিধি
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৬ আগস্ট, ২০২২
  • ১৫২ বার পঠিত

প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রুত প্রকল্প
চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ রেলপথ সম্প্রসারণ প্রকল্প ॥ বাস্তবায়ন হচ্ছেনা দীর্ঘদিনেও

দীর্ঘদিনেও বাস্তবায়ন হচ্ছেনা চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ রেলপথ সম্প্রসারণ প্রকল্প। অজ্ঞাত কারণে আলোর মুখ দেখছে না চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ রেলপথ সম্প্রসারণ প্রকল্পটি। প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রুত প্রকল্প নিয়ে অবহেলা-ষড়যন্ত্র এবং প্রকল্পের গুরুত্ব না বোঝায়, দীর্ঘদিনেও বাস্তবায়ন না হওয়ায় ক্ষুদ্ধ জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয় সচেতন মহল। সোনামসজিদ স্থলবন্দরের আমদানি পন্য পরিবহন ও মানুষের রেল যোগাযোগ সুবিধা নিশ্চিত করতে এ পরিকল্পনা করা হয়। ইতোমধ্যে সম্ভাব্যতা সমীক্ষা শেষে দু’দফায় উর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তাদের কাছে প্রতিবেদনও দাখিল করেন সংশ্লিষ্ট বিভাগ। কিন্তু পরিকল্পনাটি দৃশ্যমান হচ্ছে না। জানা গেছে, ২০১১ সালের ২৩ এপ্রিল এক জনসভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ স্থলবন্দর পর্যন্ত রেললাইন সম্প্রসারণের ঘোষণা দেন। এরই প্রেক্ষিতে ইন্সটিটিউট অব ওয়াটার মডেলিং অব বাংলাদেশ-আইবিএম এর প্রতিনিধি দল তারা সম্ভাব্য রেললাইনের বিভিন্ন এলাকা একাধিকবার পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনকালে যে সকল স্থান দিয়ে রেললাইন যাবে, সে স্থানগুলোর বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ৩ মাস জরিপ কাজ চালায়। সোনামসজিদ স্থালবন্দর পর্যন্ত ৩১ কিলোমিটার পথে যে ৩টি রেলস্টেশন নির্মাণ করা হবে, সে জায়গাও জরিপ কালে নির্ধারণ করা হয়। সম্ভাব্য সমীক্ষা প্রকল্পের মেয়াদ ২০২১ সালের জুনে সামগ্রিক সমীক্ষা কাজ সম্পন্ন হয়। সমীক্ষা কাজের জন্য চুক্তিবদ্ধ পরামর্শক প্রতিষ্ঠানটি ২০২১ সালের ১৪ মার্চ সুচনা প্রতিবেদন আর ওই বছরের ১ জুলাই অন্তর্বর্তীকালীন প্রতিবেদনও দাখিল করে। এ প্রস্তাব সরকার অনুমোদন করলে কাজ শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। অনুমদনও হয়নি, কাজও শুরু হচ্ছে না। শিবগঞ্জের পুকুরিয়া কলেজের প্রভাষক মামুন উর-রশিদ বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেল স্টেশন থেকে সোনামসজিদ স্থলবন্দর পর্যন্ত রেললাইন সম্প্রসারণের কথা রয়েছে। যদি এ পরিকল্পনাটি বাস্তবায়ন হয়, তাহলে মানুষ রেলপথে যাতায়াত বেশি করবে। একদিকে যেমন সড়ক দূর্ঘটনা রোধ হবে, অন্যদিকে সরকারের রাজস্ব বাড়বে। অনেক মানুষ সড়ক পথের যানবাহন গুলোতে শারিরীক অসুবিধার জন্য যাতায়াত পছন্দ করেনা। তবুও বাধ্য হয়ে তাদের যাতায়াত করতে হয়। পরিকল্পনাটি বাস্তবায়ন হলে ভারত-বাংলাদেশের যাতায়াতের ক্ষেত্রেও বিশাল অবদান রাখবে রেলপথ। আব্দুল্লাহ আল মামুন নামে এক ব্যবসায়ী বলেন, রাজশাহী বিভাগের লোকজনের ভারত যাওয়ার প্রয়োজন হলে সোনামসজিদ স্থলবন্দর হয়ে সড়ক পথে যাতায়াত করেন। এতে সময় বেশি লাগে। সড়ক পথের যানবাহন গুলো যেসব ঝুঁকি থাকে, ট্রেনে এসব ঝুঁকি থাকেনা। ভারত যাতায়াতে এ প্রকল্পটি বিশাল অবদান রাখবে। সোনামসজিদ স্থলবন্দর পর্যন্ত রেললাইন সম্প্রসারণ করা হলে ট্রেনে সকল আমদানি পন্য পরিবহন করা সহজ হবে। এছাড়াও ভারত থেকে বিভিন্ন পণ্য ও কৃষিভিত্তিক উত্তরাঞ্চলের কৃষিপণ্য সহজে বিপণনের ক্ষেত্রে অবদান রাখবে। ঘটবে অর্থনিতীতে বিশাল অবদান। আজিজুর রহমান নামে এক আমদানিকারক বলেন, সোনামসজিদ স্থলবন্দর পর্যন্ত রেললাইনের কাজ সম্প্রসারণ করলে রেলপথে আমদানি পণ্যগুলো ট্রেনে দেশের সব জায়গায় পৌঁছে দেয়া সম্ভব হবে। এতে করে সময় খুব কম লাগবে, পচনশীল পণ্যের ক্ষতি হবে না। আর ভাড়াও কম লাগবে। বাংলাদেশ রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চলের গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প সমূহের চারটি প্রকল্পের মধ্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ পর্যন্ত রেললাইন নির্মাণ অন্যতম একটি প্রকল্প। ইন্সটিটিউট অব ওয়াটার মডেলিং অব বাংলাদেশ-আইবিএম এর সার্ভেয়ার সানোয়ার বলেন, প্রায় বছর খানেক আগে জরিপের প্রতিবেদন সংশ্লিষ্ট দপ্তরে জমা দেওয়া হয়েছে। যে সব জায়গা দিয়ে রেললাইন সম্প্রসারণ হবে, সে জায়গা, আর উপাদানের বিষয়ে ৩ মাস জরিপ চালানো হয়। ওই সময়ে আমরা বিভিন্ন জায়গায় পিলারও পুঁতে রেখেছি। রাজশাহী পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের মহা ব্যবস্থাপক অসীম কুমার তালুকদার বলেন, পরিকল্পনাটির কথা শুনেছি। কিন্তু এ বিষয় নিয়ে এখন আর তেমন কোন আলোচনা শুনতে পাইনি। অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলীর সাথে যোগাযোগ করলে, এ কাজের অগ্রগতির বিষয়ে বলতে পারবে। রাজশাহী পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী (পথ) আসাদুল বলেন, জমি মাপজোখের কাজ সম্পন্ন করে প্রতিবেদন জমা দেওয়া হয়েছে। এখন প্রতিবেদনের উপর পরীক্ষা-নিরিক্ষা চলছে। চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক এমপি আব্দুল ওদুদ বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রুত প্রকল্প নিয়ে অবহেলা-ষড়যন্ত্র এবং প্রকল্পের উপর গুরুত্ব না দেয়ায় এবং অজ্ঞাত কারণে আলোর মুখ দেখছে না চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ রেলপথ সম্প্রসারণ প্রকল্পটি। দীর্ঘদিনেও বাস্তবায়ন হচ্ছে না প্রকল্পটি। সোনামসজিদ স্থলবন্দরের আমদানি পন্য পরিবহন ও মানুষের রেল যোগাযোগ সুবিধা নিশ্চিত করতে এ প্রকল্পের পরিকল্পনা করা হয়। দু’দফায় উর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তাদের কাছে প্রতিবেদনও দাখিল করেন সংশ্লিষ্ট বিভাগ। কিন্তু অদৃশ্য কারণে পরিকল্পনাটি দৃশ্যমান হচ্ছে না। তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ জেলার প্রতি সুদৃষ্টি রয়েছে। কিছু অসাধু রেলের কর্মকর্তারা এ অঞ্চলের উন্নয়ন চান না। তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রুত প্রকল্প হওয়ার পরও প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হচ্ছে না। তিনি জেলার মানুষ ও ব্যবসায়ীদের স্বার্থে প্রকল্প বাস্তবায়নে দ্রুত প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার আহবান জানান সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..
Copyright All rights reserved © 2022 Chapaidarpon.com
Theme Customized BY Sobuj Ali
error: Content is protected !!