1. tohidulstar@gmail.com : sobuj ali : sobuj ali
  2. ronju@chapaidarpon.com : Md Ronju : Md Ronju
‘ঘূর্ণিঝড় রোমাল’-সুন্দরবনের আরও ১৬টি বন্যপ্রাণির মৃতদেহ উদ্ধার - দৈনিক চাঁপাই দর্পণ
বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ০৬:৫১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
‘লোকাল অ্যাডাপটেশন চ্যাম্পিয়নস’ অ্যাওয়ার্ড পেলেন প্রধানমন্ত্রী পাঠানপাড়া সঃ প্রাঃ বিদ্যালয়ে অভিভাবক সমাবেশ ও দেয়ালিকা ‘স্বপ্নযাত্রা’র উদ্বোধন ঈদুল আযহা উপলক্ষে ৮ দিন বন্ধ সোনামসজিদ স্থল বন্দরের কার্যক্রম বাংলাদেশের পরবর্তী সেনাপ্রধান ওয়াকার-উজ-জামান ভারতের নতুন সেনাপ্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল উপেন্দ্র দ্বিবেদী নাচোলে ভূমিসেবা সপ্তাহ পালন উপলক্ষে জনসচেতনতামূলক সভা নামোশংকরবাটী উচ্চ বিদ্যালয়ে বিজ্ঞান মেলার সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণ চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিএমডিএ’র কৃষক-অপারেটর ও ডিলার প্রশিক্ষণ চাঁদপুরে আধিপত্য বিস্তারে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে যুবক নিহত-আহত ৪০ সৌদিতে এ পর্যন্ত ১৫ বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু

‘ঘূর্ণিঝড় রোমাল’-সুন্দরবনের আরও ১৬টি বন্যপ্রাণির মৃতদেহ উদ্ধার

বিশেষ প্রতিনিধি
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ৩০ মে, ২০২৪
  • ৩৩ বার পঠিত

‘ঘূর্ণিঝড় রোমাল’-সুন্দরবনের আরও ১৬টি বন্যপ্রাণির মৃতদেহ উদ্ধার

‘ঘূর্ণিঝড় রোমাল’ এর আঘাতে বাগেরহাটের সুন্দরবনের আরও ১৫টি হরিণ ও একটি শুকরের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে বনবিভাগ। বুধ ও বৃহস্পতিবার সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের কচিখালী এলাকা থেকে ভেসে আসা মৃত এই হরিণগুলো উদ্ধার হয় বলে খুলনা অঞ্চলের বনসংরক্ষক মিহির কুমার দো জানান। ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে সৃষ্ট জলোচ্ছ্বাসে এ নিয়ে সুন্দরবনের মোট ৫৬টি বণ্যপ্রণির মৃত্যু হল। মিহির কুমার দো সাংবাদিকদের বলেন, গত চারদিনে ৫৪টি হরিণ এবং দুটি শুকর মিলিয়ে সুন্দরবনের ৫৬টি বন্যপ্রাণির মৃতদেহ আমরা পেয়েছি। মৃত হরিণগুলো কটকা অভয়ারণ্য এলাকায় মাটি চাপা দেওয়া হয়েছে। আর ভেসে আসা ১৭টি জীবিত হরিণ উদ্ধার করে বনে অবমুক্ত করা হয়েছে। এ বন কর্মকর্তা বলছেন, ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবের দফায় দফায় উচ্চ জোয়ারে সুন্দরবনের সব নদীখাল উপচে বনের বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়ে পড়ে। এই জোয়ারের উচ্চতা ছিল দশফুটের ওপরে।
জোয়ারের পানি সুন্দরবনে গহীণে উঠে যাওয়ায় হরিণগুলো সাঁতরে কূলে উঠতে না পেরে মারা গেছে বলে ধারণা করছি। ওই পানি দেখে আগেই সুন্দবনের বন্যপ্রাণির মৃত্যুর আশঙ্কা করছিলাম। রেমালের আঘাতে সুন্দরবনের পূর্ব ও পশ্চিম বনবিভাগের ফরেস্ট স্টেশন অফিস, ক্যাম্প ও ওয়াচ টাওয়ারের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বনের ভেতরে বনভিাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য যোগাযোগের মাধ্যম ওয়্যারলেস টাওয়ারও। মিষ্টি পানির পুকুর ভরে গেছে লোনা পানিতে। তিরি আরও বলেন, বনের অবকাঠামো বিধ্বস্ত হয়ে যাওয়াসহ অন্যান্য ক্ষয়ক্ষতির প্রাথমিক পরিমাণ ৬ কোটি ২৭ লাখ টাকার ওপরে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
Copyright All rights reserved © 2024 Chapaidarpon.com
Theme Customized BY Sobuj Ali
error: Content is protected !!