1. tohidulstar@gmail.com : sobuj ali : sobuj ali
  2. ronju@chapaidarpon.com : Md Ronju : Md Ronju
রহনপুরে একটি প্রাচীন প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন-এক গম্বুজ ঘর - দৈনিক চাঁপাই দর্পণ
বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০২:০৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
অমর একুশে পালনে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রশাসনের বর্ণাঢ্য আয়োজন চাঁপাইনবাবগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধার বসত ভিঠাই ময়লা-আবর্জনার স্তুপ চাঁপাইনবাবগঞ্জে আড়স্বর অনুষ্ঠানে যুগান্তরের ২৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত শিবগঞ্জে শিমুল এমপি’র সুস্থতা কামনায় দোয়া অনুষ্ঠান নাচোল উপজেলা আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা পুলিশে চাকরি দেয়ার নামে প্রতারনার অভিযোগে দুই প্রতারক আটক নওগাঁয় দাখিল পরীক্ষার ভয়াবহ প্রক্সি ॥ কেন্দ্রসচিবসহ ৫৭ পরীক্ষার্থী আটক আরএমপি কমিশনার কাপ ব্যাডমিন্টন টূর্নামেন্টের ফাইনাল মামলা ভিন্নখাতে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ- মেয়ে নাইমা হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবীতে বাবা-মায়ের চাঁপাইনবাবগঞ্জে সংবাদ সম্মেলন জিআই পণ্যের তালিকা করতে হাইকোর্টের নির্দেশ

রহনপুরে একটি প্রাচীন প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন-এক গম্বুজ ঘর

মুঃ শফিকুল ইসলাম (নিজস্ব প্রতিনিধি)
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২৫ মে, ২০২৩
  • ১৪৪ বার পঠিত

রহনপুরে একটি প্রাচীন প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন-এক গম্বুজ ঘর

দেশে এমন কিছু পুরাকীর্তি ও প্রত্মতাত্ত্বিক নিদর্শন রয়েছে যা এখন পর্যন্ত দৃষ্টির আড়ালেই রয়ে গেছে। সরকারী কিংবা বেসরকারী পর্যায়ে এ সবের তথ্য উদঘাটনের কোন পদক্ষেপই লক্ষ্য করা যায় না। চাঁপাইনবাবগঞ্জের বরেন্দ্র ভূমির ঐতিহাসিক রহনপুরে রয়েছে এ ধরনের একটি নিদর্শন। এটি এক গম্বুজ বিশিষ্ট একটি ঘর। বিশেষজ্ঞরা অনুমান করেন, এটি মোগল আমলে নির্মিত এবং সম্ভবতঃ তাদেরই কোন বিজয় স্মৃতি। রহনপুরের উত্তর-পূর্ব এর অবস্থান। মেঝে থেকে গম্বুজের উচ্চতা ৩০ ফুট। দেয়াল ৫ফুট পুরো। উত্তর পাশে মেহরাব দৃশ্য কুঠুরী। এই গম্বুজটি বাইরের কার্নিশে লোহার বালা বা কড়া রয়েছে। গম্বুজের প্রায় চারদিকে ২/৩ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে ছোট বড় বেশ কিছু প্রত্মতাত্ত্বিক নিদর্শন চোখে পড়ে। কারুকার্য বিশিষ্ট কিনা তা ঐতিহাসিকগণ অনুসন্ধান চালালে জানা যেতে পারে। উল্লেখ্য, এ প্রাচীন নিদর্শন এক সময় প্রত্মতাত্ত্বিক বিভাগের সংশ্লিষ্ট কর্মচারীদের তত্ত্বাধানে সংরক্ষিত হত। বর্তমানে অরক্ষিত অবস্থায় রয়েছে। কারণ কোন কর্মকর্তা কর্মচারী দীর্ঘদিন ধরে এখানে থাকে না বলে এলাকাবাসী জানান। তবে একটি অসমর্থিত সূত্রে জানা গেছে, এখানকার নিয়োগকৃত কর্মচারীকে ঐতিহাসিক ছোট সোনা মসজিদে ডেপুটেশনে রাখা হয়েছে। অতিসত্বর এখানে লোক নিয়োগ করে এ প্রাচীন নিদর্শন সংরক্ষণ করা একান্ত প্রয়োজন বলে অভিজ্ঞমহল মতামত ব্যক্ত করেছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
Copyright All rights reserved © 2024 Chapaidarpon.com
Theme Customized BY Sobuj Ali
error: Content is protected !!