1. tohidulstar@gmail.com : sobuj ali : sobuj ali
  2. ronju@chapaidarpon.com : Md Ronju : Md Ronju
নিয়ামতপুরে পিটিআইয়ে প্রাথমিক শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ বন্ধ - দৈনিক চাঁপাই দর্পণ
রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ০৬:০০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৫৪৮ ঈদগাহে ঈদের জামাত ॥ জাতীয় সম্পদ চামড়া সংরক্ষনের আহবান চাঁপাইনবাবগঞ্জে ঈদ উপলক্ষে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছে জেলা প্রশাসন ও লেডিস ক্লাব পবিত্র ঈদুল আযহা’কে সামনে রেখে জয়পুরহাটের কামার পল্লী টুংটাং শব্দে সরগরম আমের ক্যারেটে মাদক পাচারকালে মাদকসহ ব্যবসায়ী আটক রেলওয়ের শুদ্ধাচার পুরস্কার পেলেন ভোলাহাটের কমল রাজশাহী মহানগরীতে ২৪ জন জুয়াড়ি গ্রেফতার বঙ্গবন্ধু মানুষের মৌলিক চাহিদা সংরক্ষণ করে গেছেন-প্রতিমন্ত্রী পলক ফুলবাড়ীতে গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা ॥ স্বামী ও শাশুড়ী আটক আমের রাজধানী চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুরে জমজমাট আমবাজার-দাম চড়া ঈদযাত্রায় পদ্মা সেতুর সাত বুথে টোল আদায়-তারপরও গাড়ির চাপ

নিয়ামতপুরে পিটিআইয়ে প্রাথমিক শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ বন্ধ

নিয়ামতপুর (নওগাঁ) সংবাদদাতা
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৩ অক্টোবর, ২০২৩
  • ১২৮ বার পঠিত

নিয়ামতপুরে পিটিআইয়ে প্রাথমিক শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ বন্ধ

নওগাঁর নিয়ামতপুরে সমন্বয়হীনতা অভাবে পিটিআইয়ে প্রাথমিক শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ বন্ধ করা হয়েছে। পিটিআইয়ের প্রশিক্ষণ নিয়ে উপজেলা শিক্ষা বিভাগের ‘বিতর্কিত’ সিদ্ধান্তের জেরে সৃষ্ট জটিলতায় এই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। মঙ্গলবার (৩ অক্টোবর) সকালে পিটিআইয়ের প্রশিক্ষণটি বন্ধ হয়ে যায়। উপজেলা রিসোর্স সেন্টার সূত্রে জানা যায়, নিয়ামতপুর উপজেলা শিক্ষাক্রম বিস্তরন বিষয়ক প্রশিক্ষণে মাস্টার ট্রেইনার হিসেবে নিয়োগ পায় উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের ইন্সট্রাক্টর তমা চৌধুরী। নওগাঁ জেলা পিটিআইয়ের সুপারিনটেনডেন্ট খোন্দকার মো. ইকবাল হোসেন স্মারক নং ১২৮৩/২৬ এ তমা চৌধুরীকে দায়িত্ব পালনের জন্য অনুমতি দেয়। এই প্রশিক্ষণে দু’জন ট্রেইনার প্রশিক্ষণের বিপরীতে উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১৭ জন প্রধান শিক্ষক ও ১৩ জন সহকারী শিক্ষক অংশ গ্রহন করার কথা ছিল। তবে নিয়োগ প্রাপ্ত প্রশিক্ষককে বাদ দিয়ে উপজেলা শিক্ষা অফিসার দুই জন প্রশিক্ষক প্রতিনিধি দিবেন। এমন মর্মে সমন্বয়হীনতা অভাবে প্রথম দিনের প্রশিক্ষণ বন্ধ ঘোষণা করেন ইউআরসি তমা চৌধুরী। শিক্ষক প্রতিনিধিরা বলেন, উপজেলা শিক্ষাক্রম বিস্তরন বিষয়ক প্রশিক্ষণে আমরা সকলেই অংশ নেয়। তবে উপজেলা রিসোর্স সেন্টার ও উপজেলা শিক্ষা অফিসারের সমন্বয়হীনতা কারণে প্রশিক্ষণটি বন্ধ ঘোষণা করা হয়।
উপজেলা রিসোর্স সেন্টার ইন্সট্রাক্টর তমা চৌধুরী বলেন, আমি উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে বলেছিলাম আপনি একজন ট্রেইনার দেন। উপজেলা শিক্ষা অফিস দুই জন ট্রেইনার দিবে। এমতবস্থায় সমন্বয়হীনতার অভাবে আজকের প্রশিক্ষণটি বন্ধ করা হয়। উপজেলা শিক্ষা অফিসার শহিদুল আলম বলেন, একজন প্রশিক্ষক পরপর দু’ব্যাচে প্রশিক্ষকের দায়িত্ব পালন করতে পারবেন না। সে পরপর তিনবার ট্রেইনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। উপজেলা শিক্ষা অফিসে দু’জন ট্রেইনার রয়েছে। শিক্ষা অফিস থেকে এবার দু’জন ট্রেইনার থাকবে। এটা বলায় তিনি প্রশিক্ষণ বন্ধ করে দেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইমতিয়াজ মোরশেদ বলেন, বিষয়টি সম্পর্কে অবগত রয়েছি। এ বিষয়ে উধ্বর্তন কর্মকর্তা খুব শিঘ্রই ব্যবস্থা নিবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
Copyright All rights reserved © 2024 Chapaidarpon.com
Theme Customized BY Sobuj Ali
error: Content is protected !!