1. ronju@chapaidarpon.com : Md Ronju : Md Ronju
  2. sobuj033@gmail.com : sobuj :
গোমস্তাপুরে মডেল মসজিদ নির্মাণ কাজ বন্ধ ॥ কর্তৃপক্ষ উদাসীন-দুষছেন ঠিকাদারকে - দৈনিক চাঁপাই দর্পণ
শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ০২:০১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বিত্তবানদের পাশে দাঁড়ানোর অনুরোধ- অর্থাভাবে চিকিৎসা হচ্ছে না ট্রেনে পা হারানো গোমস্তাপুরের দরিদ্র আখতারুলের রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় বীর মুক্তিযোদ্ধা জিল্লার রহমানের দাফন সম্পন্ন পলাশবাড়ীতে মুক্তিযোদ্ধার পরিবারের উপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন শিবগঞ্জে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত ১ শিবগঞ্জে নিহত পরিবারকে আড়াই লাখ টাকা সহায়তা বীর মুক্তিযোদ্ধার উপর হামলাকারীদের শাস্তির দাবিতে নাচোলে মানববন্ধন রহনপুরে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে সচেতনতা সভা গাইবান্ধায় জাতীয় পার্টি বিক্ষোভ মিছিল ৫৯ বিজিবি’র হাতে ফেন্সিডিল ও মোটর সাইকেল জব্দ ॥ আটক এক বাগাতিপাড়ায় ভাড়া বৃদ্ধির দাবিতে ভ্যান চালকদের অবরোধ

গোমস্তাপুরে মডেল মসজিদ নির্মাণ কাজ বন্ধ ॥ কর্তৃপক্ষ উদাসীন-দুষছেন ঠিকাদারকে

বিশেষ প্রতিনিধি
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৬ আগস্ট, ২০২২
  • ১৫৭ বার পঠিত

গোমস্তাপুরে মডেল মসজিদ নির্মাণ কাজ বন্ধ ॥ কর্তৃপক্ষ উদাসীন-দুষছেন ঠিকাদারকে

চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুর উপজেলায় গত ২ বছরেও শুরু হয়নি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের নির্মাণ কাজ। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অনেকটা উদাসীনতায় এভাবে বন্ধ হয়ে আছে গোমস্তাপুরের মডেল মসজিদ নির্মাণ। জেলার অন্যান্য মডেল মসজিদগুলোর কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে হলেও নির্মাণ না হওয়া গোমস্তাপুরের মসজিদটির বিষয়ে কোন তৎপরতাও নেই। তবে, গণপূর্ত বিভাগের দাবী, অজ্ঞাত কারণে ঠিকাদার মডেল মসজিদের নির্মাণ কাজ করেনি, এজন্য নির্মাণ কাজ বন্ধ আছে। জানা গেছে, গোমস্তাপুর উপজেলার প্রসাদপুর এলাকায় প্রায় ৪৫ শতাংশ মাটির উপর নির্মাণ হওয়ার কথা মডেল মসজিদ। এ মসজিদের নির্মাণে ব্যয় ধরা হয়েছে ১২ কোটি টাকা। দরপত্র (টেন্ডার) আহ্বান করে ঠিকাদার কাজ করার জন্য জামানতও দেয়। কিন্তু অজ্ঞাত কিছু জটিলতা থাকায় মসজিদের নির্মাণ কাজ করবেনা বলে ঠিকাদার গণপূর্ত বিভাগকে জানিয়ে দেয়। পুনরায় আর দরপত্র আহ্বান করাও হয়নি, মসজিদের নির্মাণও হয়নি। এবিষয়ে এলাকাবাসীর মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে। গোমস্তাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আসমা খাতুন বলেন, গোমস্তাপুর উপজেলায় যোগ দেয়ার পর জানতে পারি কিছু জটিলতার কারণে মডেল মসজিদের নির্মাণ কাজ বন্ধ আছে। শুনেছি এস্টিমেট কপিতে জটিলতা আছে। এ বিষয়ে ইসলামিক ফাউন্ডেশন ভালো বলতে পারবেন। চাঁপাইনবাবগঞ্জ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ফিল্ড অফিসার মুহাম্মদ শরিফুল ইসলাম বলেন, যে জায়গায় মসজিদটি নির্মাণ করা হবে, সে স্থানটি ডোবা জায়গা। পরে মসজিদ নির্মাণ কাজের ঠিকাদার কাজ করেনি। এ বিষয়ে আমাদের কাছে তেমন তথ্য নেই। গণপূর্ত বিভাগ নির্মাণ কাজ শেষ করার পর আমাদের কাছে বিল্ডিং হ্যান্ডওভার করলে এর দায় দায়িত্ব আমাদের। চাঁপাইনবাবগঞ্জ গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মহসীন বলেন, ২০১৯ সালের জুন-জুলাই মাসে দরপত্র আহ্বান করা হলে, নির্মাণ কাজের জন্য একজন ঠিকাদার নিয়োগ করা হয়। পরে তারা আর মসজিদটির নির্মাণ কাজ করবে না বলে জানায়। পরে আর দরপত্র আহ্বান করা হয়নি, তাই ঠিকাদার নিয়োগ হয়নি। আপাতত মসজিদটির নির্মাণ কাজ বন্ধ আছে। জটিলতা বিষয়ে নির্বাহী প্রকৌশলী বলেন, এ বিষয়ে আমরা জানিনা। উর্ধতন পর্যায়ে কাগজপত্র পাঠানো হয়েছে। এব্যাপারে তদন্ত করে যদি আমাদের ভুল পায়, তাহলে আমাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিবেন। যদি ঠিকাদারের ত্রুটি পাওয়া যায়, তাহলে তার জামানত বাতিল হবে। উল্লেখ্য, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা পর্যায়ের চারতলা বিশিষ্ট একটি, চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর, শিবগঞ্জ, নাচোল, আর ভোলাহাট উপজেলায় তিনতলা বিশিষ্ট মোট ৫টি মডেল মসজিদের নির্মাণ কাজ এগিয়ে চলেছে। চলতি আগষ্ট মাসে মসজিদ গুলোর নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার কথা জানিয়েছে গণপূর্ত বিভাগ।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর..
Copyright All rights reserved © 2022 Chapaidarpon.com
Theme Customized BY Sobuj Ali
error: Content is protected !!